শায়লা আন্টি

Image

“এই লেখাটি আমার নিজের লেখা না। অন্য একটি চটি সাইট থেকে সংগৃহীত। ভাল লাগল তাই শেয়ার করলাম। মূল লেখক এখানে থেকে থাকলে তার কাছে আমি ক্ষমাপ্রার্থী তার অনুমতি ছাড়াই পোষ্ট করার জন্য”
ছোট মামীর মতো আরেকটা মহিলা আমার কলেজ বয়সে দেখেছি, পাশের বাসার শায়লা আন্টি। উনি ব্রা পরতেন না কখনো। শাড়ীটা কখনোই বুকে থাকতো না। ফলে আমার ফ্যান্টাসীতে আরো একজোড়া দুধ যোগ হলো। শায়লা আন্টির দুধগুলো প্রথমদিন দেখেই ঝাঁপিয়ে পড়তে ইচ্ছে হয়েছিল। উনি কিছুদিন ছোটমামীকে ভুলিয়ে রেখেছিলেন। ওই বাসার রুবীর মাও বুকে শাড়ী রাখতেন না, তবে রুবীর মার দুধগুলো ছোট ছিল অনেক। মাঝে মাঝে রুবীর মার দুধ নিয়েও হাত মেরেছি। সেই বাসার নীচ তলায় থাকতো তানভীরের মা। আরেক যৌবনবতী রমনী, বুকে শাড়ী রাখতেন না। আমি তিনতলা থেকে দেখতাম ব্লাউজের বড় ফাক দিয়ে উনার দুধের অর্ধেকটা দেখা যাচ্ছে। উনাকে নিয়েও কখনো কখনো হাত মেরেছি।

পানি আনার জন্য শায়লা আন্টির বাসায় যাতায়াত। ছুতা খুজতাম সবসময় পানি আনার। উদ্দেশ্য শায়লা আন্টির রূপ দর্শন। রূপ এবং যৌবন বিশেষ করে ওনার সুন্দর স্তন যুগল। মনে আছে উনি বিয়ের পরদিন সকালে বিছানায় বসে আছে, স্বামী বাইরে গেছে, অন্যন্য আন্টিরা গেছে কথা বলতে, ফাজিল এক আন্টি আমার সামনেই জিজ্ঞেস করে বসে রাতে কী কী হয়েছে। আমি তখন ষোল-সতের বছর বয়সের। নারী শরীরের প্রতি প্রচন্ড আগ্রহ। পত্রিকায় নূতন-সুচরিতার ব্লাউস পরা স্তন দেখেও দিনে দুবার হাত মারি। সেই আমি চোখের সামনে দেখলাম শায়লা আন্টি আলুথালু বেশে বসে আছে। সারারাতের ধকলের চিহ্ন পরিষ্কার। চেহারায় তৃপ্তির ছাপ। পালিয়ে বিয়ে করেছেন উনি। এখানে ছিল লুকানো বাসর। কিন্তু আমি যেটা বেশী খেয়াল করলাম সেটা হলো ওনার লাল শাড়ীটা কোলে পড়ে আছে। ব্লাউজের লো কাট ফাক দিয়ে ওনার আমসাইজ ফর্সা স্তন দুটোর অর্ধেকটা উঁকি দিচ্ছে। ওনার স্তনের সেই শূভ্র সৌন্দর্য আমার চোখে এখনো ভাসে। পরিপূর্ন যৌবন বললে ওনাকে আর ছোটমামীকে ভাসে। আমি চোখ ফেরাতে পারলাম না। জুলজুল করে তাকিয়ে রইলাম ওনার দুধের দিকে। এই দুধ দুটো সারারাত কামড়ে কামড়ে খেয়েছে আংকেল। আমার খুব হিংসা হতে লাগলো। ইশশ একবার যদি খেতে পারতাম। সেদিন বাসায় ফিরে হাত মেরেছি। কল্পনায় চুষেছি অনেকবার।

http://adf.ly/SNORc

This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s